জাতীয়রাজনীতি

সরকার সমঝোতায় না এলে আন্দোলন

ঢাকা,১৭ মে, (ডেইলি টাইমস ২৪):

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের বিষয়ে সরকার সমঝোতায় না এলে বিএনপি আন্দোলনে যাবে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ। তিনি বলেছেন, আগামী নির্বাচন একদলীয়ভাবে করতে দেওয়া হবে না; দেশে একদলীয় নির্বাচন আর হবে না। আমরা নির্বাচন করব এবং আন্দোলন করব।

ঐতিহাসিক ফারাক্কা লংমার্চ উপলক্ষে গতকাল মঙ্গলবার জাতীয় প্রেস ক্লাবে ভাসানী অনুসারী পরিষদ আয়োজিত আলোচনাসভায় মওদুদ আহমদ এসব কথা বলেন। তিনি আরো বলেন, নির্বাচনের সময় এমন একটি সরকার থাকবে যাদের রাজনৈতিক স্বার্থ থাকবে না। যাতে জনগণ স্বতঃস্ফূর্তভাবে যাকে খুশি তাকে ভোট দিতে পারে।

নির্বাচন করতে হবে এ জন্য যে দেশের মানুষ বর্তমান সরকারের পরিবর্তন চায়। অনেক বছর হয়ে গেছে আপনারা শাসন করছেন এবং অনির্বাচিতভাবে শাসন করে যাচ্ছেন। আগামী নির্বাচনের মাধ্যমে জনগণ পরিবর্তন আনতে চায় দেশকে এগিয়ে নেওয়ার জন্য।

মওদুদ আহমদ বলেন, আমরা ভিশন-২০৩০ দিয়েছি। এটি একটি মাইলফলক, একটি সনদ, একটি চার্টার্ড। এর মাধ্যমে বিএনপি দেশের মানুষের সঙ্গে চুক্তি সম্পাদিত করেছে। যে জন্য অনেকে এখন হিংসা করছে, ঈর্ষান্বিত হচ্ছে। প্রথমে তারা (আওয়ামী লীগ) বলল যে এটা অন্তঃসারশূন্য। এখন বলছে, এগুলোর মধ্যে অনেক কিছু আছে যা আমরা নিজেরাই অনেক আগে থেকে করছি। আমাদেরটা অনুসরণ করে আপনারা (বিএনপি) এগুলো করেছেন। অর্থাৎ তারা (ক্ষমতাসীন দল) নার্ভাস হয়েছে।

ক্ষমতায় গেলে এই ভিশন বাস্তবায়ন করার প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন মওদুদ আহমদ বলেন, অনেকে জানতে চান, বিএনপি ক্ষমতায় গেলে কী করবে। বিএনপি কী আওয়ামী লীগের মতো ব্যবহার করবে? আমি বলতে চাই, বিএনপি অবশ্যই আওয়ামী লীগের মতো ব্যবহার করবে না। কারণ তারা (আওয়ামী লীগ) একদলীয় শাসনব্যবস্থা কায়েম করেছে।

আমরা একদলীয় শাসনব্যবস্থায় বিশ্বাসই করি না। আমাদের নেতা শহীদ জিয়াউর রহমান বহুদলীয় গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করেছেন। সংসদকে সত্যিকার অর্থে একটি রাজনৈতিক প্রতিষ্ঠান হিসেবে দাঁড় করাব। আমরা প্রতিহিংসার রাজনীতি করব না।

দুই ছাত্রী ধর্ষণ ও এর ধারাবাহিক খবর প্রকাশে গণমাধ্যমের ভূমিকার প্রশংসা করে সাবেক এই আইনমন্ত্রী বলেন, মিডিয়ার ভূমিকার কারণে আজকে সরকারকে সজাগ হতে হয়েছে এবং ব্যবস্থা নিতে হয়েছে। সাংবাদিক দম্পতি সাগর-রুনি হত্যার কথা তুলে ধরে তিনি বলেন, এখন পর্যন্ত ওদের একটা মানুষকে গ্রপ্তোর করা সম্ভব হয়নি।

সংগঠনের নির্বাহী চেয়ারম্যান অধ্যাপক জাসিম উদ্দিন আহমেদের সভাপতিত্বে আলোচনাসভায় জাতীয় পার্টির (কাজী জাফর) মহাসচিব মোস্তফা জামাল হায়দার, পানি বিশেষজ্ঞ প্রকৌশলী এস আই খান, কলামিস্ট কাজী সিরাজ, প্রয়াত রাজনীতিক মশিয়ুর রহমান যাদু মিয়ার মেয়ে রিটা রহমান, ডেমোক্রেটিক লীগের সাধারণ সম্পাদক সাইফুদ্দিন আহমেদ মনি, ভাসানী অনুসারী পরিষদের সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম বাবুল প্রমুখ বক্তব্য দেন।

Show More

আরো সংবাদ...

Back to top button