রাজনীতি

বাজেটে কয়েকটি বিষয়ে জনআকাঙ্ক্ষা পূরণ হয়নি: ১৪ দল

ঢাকা, ০৪ জুন, (ডেইলি টাইমস ২৪):

২০১৭-১৮ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটের কয়েকটি বিষয়ে জনআকাঙ্ক্ষা পূরণ হয়নি বলে মনে করে ক্ষমতাসীন ১৪ দল। আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন এ জোট সেই বিষয়গুলো সংশোধনের আহ্বান জানিয়েছে।

রবিবার ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে ১৪ দলের এক সভা অনুষ্ঠিত হয়। প্রস্তাবিত বাজেট ও ঘূর্ণিঝড় মোরা নিয়ে এই বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। সভা শেষে ১৪ দলের মুখপাত্র মোহাম্মদ নাসিম সাংবাদিকদের বলেন, ‘একটি বিশাল অঙ্কের উচ্চাভিলাষী বাজেট দেওয়ায় অর্থমন্ত্রীকে আমরা ধন্যবাদ জানাই। তবে আমানাত, আবগরী শুল্ক ও সারচার্জসহ কয়েকটি বিষয়ে আমরা আলোচনা করেছি। এ বিষয়ে আমাদের পর্যবেক্ষণ রয়েছে। বাজেটের যে বিষয়গুলো জন আকাঙ্ক্ষা বাস্তবায়ন করতে পারেনি, সেগুলো আশা করি প্রধানমন্ত্রী ও অর্থমন্ত্রী বিবেচনা করবেন।’

তিনি আরও বলেন, ‘এই উচ্চাকাঙ্ক্ষী বাজেট প্রমাণ করেছে, দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। এটি বাস্তবায়নের মাধ্যমে উচ্চমধ্যম আয়ের দেশের দিকে আমরা এগুবো।’

সভার সভাপতি ও জাসদের (একাংশ) সভাপতি শরীফ নুরুল আম্বিয়া বলেন, ‘বাজেটের কিছু বিষয় সংশোধনের প্রয়োজন আছে। আবগারী শুল্ক বাড়ানোর প্রস্তাব প্রত্যাহারের দাবি জানাচ্ছি আমরা।’

এদিকে বাজেট নিয়ে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার সমালোচনার বিষয়ে নাসিম বলেন, ‘বাজেটের ৮ ঘণ্টার মধ্যেই না পড়ে, না বুঝে একটি ইফতার পার্টিতে তিনি মিথ্যা বলেছেন, এটি তার চরিত্র।’

তিনি বলেন, ‘এ বাজেট গরীবকে সাহায্য করবে। কিন্তু তারা (বিএনপি) সমালোচনা করতে অভ্যস্ত। আমাদের সমর্থন তারা করতে পারেন না। হাওয়া ভবন বানিয়ে যারা ধনীর স্বার্থরক্ষা করেছে তাদের মুখে এসব (গরীব শোষনের বাজেট বলা) শোভা পায় না।’

অর্থনীতিবিদদের সমালোচনার বিষয়ে নাসিম বলেন, ‘বিশ্লেষণে কিছুটা নেগিটিভ না বললে তারা আবার অর্থনীতিবিদ হবেন কিভাবে? এটা তাদের অভ্যাস।’

আগামী নির্বাচন প্রসঙ্গে আওয়ামী লীগের এ প্রেসিডিয়াম সদস্য বলেন, ‘নির্বাচন নিয়ে দেশি-বিদেশি প্রেসক্রিপসন শুরু হয়ে গেছে। এ অধিকার তাদের কে দিয়েছে? সংবিধান অনুযায়ী নির্বাচন হবে, কিন্তু দেশি-বিদেশি চেনামহল চক্রান্তে তৎপর হয়ে ওঠেছে।’

নাসিম বলেন, ‘জামায়াত-বিএনপি হুমকি দিচ্ছে। তারা চক্রান্ত করে ব্যর্থ হয়েছিল, হেফাজত চক্রান্ত করে ব্যর্থ হয়েছে। সামনে কোনও চক্রান্ত হলে, প্রেসক্রিপশন দিলে তা প্রতিহত করতে আমরাও মাঠে নামবো।’

রাঙ্গামাটির লংগদুর ঘটনায় উদ্বেগ জানিয়ে মোহাম্মদ নাসিম বলেন, আগামী ৬ জুন ১৪ দলের প্রতিনিধিরা ওই এলাকায় যাবেন। এছাড়া ৭ জুন কক্সবাজারসহ ঘূর্ণিঝড় মোরায় ক্ষতিগ্রস্ত এলাকায় যাবেন ১৪ দলের প্রতিনিধিদল।

Show More

আরো সংবাদ...

Back to top button