জেলার সংবাদ

ভোলায় বাড়ছে হত্যাকাণ্ড, ৫ মাসে ১৫ খুন

ঢাকা, ০৫ জুন, (ডেইলি টাইমস ২৪):

ভোলায় হঠাৎ করেই বেড়ে গেছে হত্যাকাণ্ড। এতে আতঙ্কিত হয়ে পড়েছে সাধারণ মানুষ। গত ৫ মাসে জেলায় ১৫টি হত্যাকাণ্ড ঘটেছে। চলতি মাসেই ৪টি হত্যাকাণ্ডর ঘটনা ঘটেছে। এর মধ্যে একজন শিশু ও তিনজন নারী রয়েছেন।

যৌতুক ও পরকীয়া প্রেমসহ নানা কারণে এসব হত্যার ঘটনা ঘটেছে বলে স্থানীয় সূত্র থেকে জানা গেছে। সর্বশেষ গত শনিবার একরাতে একই সঙ্গে দৌলতখানে মাকে গলা কেটে হত্যার পর মেয়েকে আগুনে পুড়িয়ে হত্যা করা হয়েছে। এ ছাড়া ক্ষমতাসীন দলের ছত্রছায়ায় ভোলা সদরে গৃহবধূ রিনা হত্যাকাণ্ড ও লালমোহনে যৌতুকের দাবিতে স্ত্রী তিথী হত্যার মতো চাঞ্চল্যকর ঘটনা রয়েছে।

চাঞ্চল্যকর এসব হত্যাকাণ্ডর ঘটনায় পুলিশ অধিকাংশ আসামি গ্রেপ্তার করতে পারছে না। তবে, পুলিশের দাবি গ্রেপ্তার অভিযান চলছে।

ভোলার পুলিশ সুপার কার্যালয়ের দেওয়া তথ্য মতে, চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে ৪ জুন পর্যন্ত জেলায় মোট ১৫টি হত্যাকাণ্ডর ঘটনা ঘটেছে। এর মধ্যে জানুয়ারিতে ২টি, ফেব্রুয়ারিতে ২টি, মার্চ মাসে ১টি, এপ্রিল মাসে ৪টি, মে মাসে ২টি এবং জুন মাসের শুরুতে ৪টি হত্যাকাণ্ড ঘটেছে।

শনিবার দৌলতখান উপজেলার দক্ষিণ জয়নগর ইউনিয়নের পশ্চিম জয়নগর গ্রামে সবচেয়ে চাঞ্চল্যকর এবং নৃশংস হত্যার ঘটনা ঘটে। ওই দিন পারিবারিক কলহের জের ধরে বিল্লাল হোসেন নামের গাড়িচালক তার স্ত্রী শাহনাজকে গলা কেটে হত্যার পর নিজ ঘরে আগুন জ্বালিয়ে দেয়। এতে অগ্নিদগ্ধ হয়ে মর্মান্তিকভাবে মারা যায় তার এক বছর বয়সী মেয়ে মোহনা। এ ঘটনায় নিহতর ভাই বাদী হয়ে দৌলতখান থানায় পাঁচজনকে আসামি করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

দৌলতখান থানার ওসি এনায়েত হোসেন বলেন, আসামিকে ঘটনার দিন গ্রেপ্তার করা হয়। পরে তাকে আদালতে হাজির করা হলে সে আদালতের বিচারকের কাছে হত্যার দায় স্বীকার করেন। গত ২ জুন লালমোহন পৌর শহরে পারিবারিক কলহের জের ধরে হত্যা করা হয়েছে গৃহবধূ মাহমুদা মেহের তিথিকে। এ ঘটনায় নিহতর লাশ হাসপাতালে রেখে স্বামীসহ শ্বশুরবাড়ির লোকজন পালিয়ে যায়।

নিহতর বাবা কামাল হোসেন বাদী হয়ে তিথির স্বামী ছাত্রলীগ নেতা রুবেলসহ আটজনকে আসামি করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। এ হত্যা ঘটনার মামলার তদন্ত কর্মকর্তা লালমোহন থানার এসআই জামাল হোসেন বলেন, ‘আসামিরা পলাতক রয়েছে। তবে, তাদেরকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। এ ঘটনার মাত্র ২৪ ঘণ্টার মধ্যে উপজেলার মঙ্গলসিকদার সংলগ্ন মেঘনায় হাত পা বাঁধা অবস্থায় অজ্ঞাতনামা এক নারীর লাশ উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় লালমোহন থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে।  লালমোহন থানার ওসি হুমায়ুন কবির বলেন, এ হত্যাকাণ্ডর ঘটনা উদঘাটনের চেষ্টা চলছে।

একই উপজেলায় গত ৮ মে বদরপুর ইউনিয়নের চরচিটিয়া গ্রামে হাঁসে ধান খাওয়াকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষর ধারালো অস্ত্রর আঘাতে মফিজুল ইসলাম নামে বৃদ্ধকে হত্যা করা হয়।

এ ছাড়া গত ১৪ মে ভোলা সদর উপজেলার ভেলুমিয়া ইউনিয়নে গৃহবধূ রিনা হত্যাকাণ্ডর ঘটনা ঘটে। রিনাকে হত্যার পর গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা বলে চালিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করে তার স্বামী অটোচালক মো. আলী। পুলিশ এ ঘটনায় আসামিদের গ্রেপ্তারের অভিযান চালাচ্ছে।

এ ব্যাপারে ভোলার পুলিশ সুপার মোকতার হোসেন বলেন, দৌলতখানে মা-মেয়েকে হত্যার ঘটনায় মূল আসামি বিল্লাল হোসেনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে সে হত্যার কথা স্বীকার করেছে। অন্য হত্যাকাণ্ডর সাথে জড়িত অধিকাংশ আসামিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

Show More

আরো সংবাদ...

Back to top button