জেলার সংবাদ

রামগড়ে পুলিশের ওপর ইউপিডিএফের পেট্রোল বোমা ও ককটেল নিক্ষেপ

ঢাকা, ০৫ জুন, (ডেইলি টাইমস ২৪):

খাগড়াছড়ির রামগড়ে সোমবার সড়ক অবরোধ চলাকালে ইউপিডিএফের কর্মীরা  পুলিশকে লক্ষ্য করে পেট্রোল বোমা নিক্ষেপ ও ককটেল ফাটিয়েছে। পুলিশ পাল্টা গুলি চালাতে তারা  জঙ্গলে পালিয়ে যায়। এ সময় ইউপিডিএফের কর্মীরা ঢাকা থেকে খাগড়াছড়িগামী নৈশ কোচসহ অটোরিকশা ভাংচুর করে।
লংগদু ঘটনার প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল করার সময় রবিবার খাগড়াছড়ির দীঘিনালা থেকে  আটক হওয়া ইউপিডিএফের ছাত্র সংগঠন পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের দুই নেতার মুক্তির দাবিতে সংগঠনটি সোমবার খাগড়াছড়িতে আধা বেলা সড়ক অবরোধ কর্মসূচির ডাক দেয়।
পুলিশ ও স্থানীয় এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, সড়ক অবরোধকারীরা সোমবার ভোরে রামগড় জালিয়াপাড়া সড়কের যৌথখামার এলাকায় রাস্তার ওপর গাছ ফেলে ব্যারিকেড দেয়। খবর পেয়ে রামগড় থানার এএসআই সিদ্দিকের নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল যৌথখামারে গেলে রাস্তার দুপাশে টিলার ওপর থেকে ইউপিডিএফের কর্মীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে ২-৩টি পেট্রোল বোমা ও ৪-৫টি ককটেল নিক্ষেপ করে। বিকট শব্দে পেট্রোল বোমা ও ককটেলগুলো বিস্ফোরিত হয়। পুলিশের উপর বোমা ও ককটেল হামলার খবর পেয়ে থানার অফিসার ইনচার্জ অতিরিক্ত র্ফোস নিয়ে ঘটনাস্থলে গেলে তারা জঙ্গলে গা ঢাকা দেয়। এ সময়  পুলিশ রাস্তার ব্যারিকেড সরিয়ে খাগড়াছড়িগামী ঢাকার চারটি নৈশ কোচ পার করে দেয়ার সময় অবরোধকারীরা গাড়ির ওপর ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে। এতে শান্তি পরিবহনের একটি নৈশ কোচের গ্লাস ভেঙে যায়। এ সময় তারা দুটি অটোরিকশা ভাংচুর করে।
রামগড় থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. শরীফুল ইসলাম ইউপিডিএফের কর্মীরা পুলিশের ওপর পেট্রোল বোমা ও ককটেল হামলা ও গাড়ি ভাংচুরের ঘটনার কথা স্বীকার করেন।
Show More

আরো সংবাদ...

Back to top button