জাতীয়

বাজেট দুর্নীতিবান্ধব: টিআইবি

২০১৭-১৮ অর্থবছরের প্রস্তাবিত জাতীয় বাজেটকে দুর্নীতিবান্ধব বাজেট বলে মন্তব্য করেছে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি)। ৬ জুন মঙ্গলবার টিআইবির সিনিয়র প্রোগ্রাম ম্যানেজার (আউটরিচ অ্যান্ড কমিউনিকেশন) মোহাম্মদ জাহিদুল ইসলাম স্বাক্ষরিত এক বিবৃতিতে এ মন্তব্য করা হয়।

ব্যাংকিং খাতে চলমান দুর্নীতি ও অর্থ পাচার বন্ধে বাজেটে কোনো প্রস্তাব নেই উল্লেখ করে বিবৃতিতে টিআইবির নির্বাহী পরিচালক ড. ইফতেখারুজ্জামান বলেন, ‘একদিকে ব্যাংকিং খাতে চলমান দুর্নীতি এবং অর্থ পাচার বন্ধে প্রস্তাবিত বাজেটে কোনো পদক্ষেপের প্রস্তাব তো করাই হয়নি, উল্টো দুর্নীতিগ্রস্ত রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন ব্যাংকিং খাতে মূলধন বাবদ কর আদায়ের মাধ্যমে দুই হাজার কোটি টাকা অর্থায়নের প্রস্তাব করে জনগণের অর্থ আত্মসাৎ ও দুর্নীতিকেই প্রতিপালন ও উৎসাহিত করা হলো।’

ড. ইফতেখায়রুজ্জামান আরও বলেন, ‘সীমিত ও স্বল্প আয়ের মানুষের সঞ্চয়ের ওপর অতিরিক্ত করারোপ করে তাদের জন্য বৈধ পথে সামান্যতম বাড়তি আয়ের পথও রুদ্ধ করার প্রস্তাব করা হয়েছে। বিত্তশালী ও ধনীদের তুলনায় মধ্যম ও নিম্ন আয়ের মানুষের জন্য অতিরিক্ত প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ করের বোঝা চাপানো হয়েছে। যা একদিকে যেমন বৈষম্যমূলক, অন্যদিকে যেকোনও মাপকাঠিতেই রাজস্ব বাড়ানোর টেকসই উপায় হতে পারে না।’

বিবৃতিতে, প্রস্তাবিত বাজেট মূসকের চূড়ান্ত বোঝা মধ্যবিত্ত, নিম্ন আয়ের বা সাধারণ জনগণের ওপর আরোপিত হতে বাধ্য যা সাধারণ মানুষের জীবন দুর্বিষহ করে তুলবে উল্লেখ করে বলা হয়, এর সঙ্গে মূল্যস্ফীতি ও অসাধু ব্যবসায়ীদের কারসাজি যুক্ত হয়ে সাধারণ মানুষের জীবন দুর্বিষহ হয়ে ওঠায় অস্থিতিশীলতা ও ক্ষোভ বাড়বে।

Show More

আরো সংবাদ...

Back to top button