খেলাধুলা

চ্যম্পিয়নস ট্রফির সেমিফাইনালে বাংলাদেশ!

ঢাকা, ১১ জুন, (ডেইলি টাইমস ২৪):

নতুন মাইলফলকে পা রাখল বাংলাদেশ- সৌজন্যে ইংল্যান্ড। ক্রিকেট বিশ্বের সেরা আট দলের আসরের সেমিফাইনালে যাওয়ার ক্ষেত্রে আজ অস্ট্রেলিয়াকে হারিয়ে দারুণ অবদান রাখল স্বাগতিক ইংল্যান্ড।

ইংল্যান্ডের ব্যাটিংয়ের শুরুটা প্রায় গতকালের বাংলাদেশের মতই হয়েছিল। ৩৫ রানে ৩ উইকেট হারানো দলকে পথ দেখান অধিনায়ক মরগ্যান এবং অলরাউন্ডার বেন স্টোকস। যেমনটা করেছিলেন সাকিব আল হাসান এবং মাহমুদ উল্লাহ রিয়াদ। মরগ্যান-স্টোকসের সেই জুটিতেই মূলত হেরে বসে অস্ট্রেলিয়া। জয় থেকে ৩৮ রান দূরে থাকতে আবারও বৃষ্টি নামে। শেষ পর্যন্ত ডাকওয়ার্থ লুইস মেথডে ৪০ রানে ম্যাচ জিতে অপরাজিত গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে সেমিতে গেল ইংল্যান্ড। সাথে নিয়ে গেল বাংলাদেশকেও। টুর্নামেন্ট পেয়ে গেল ‘এ’ গ্রুপের দুই সেমিফাইনালিস্ট দল।

ডাকওয়ার্থ লুইস মেথডে ইংলিশদের টার্গেট দাঁড়িয়েছিল ৪০.২ ওভারে ২০১ রান। কিন্তু খেলা বন্ধ হওয়ার আগে ৪০.২ ওভার খেলে ৪ উইকেটে ২৪০ রান তুলে ফেলেছিল ইংল্যান্ড। তাই স্বাগতিকদের ৪০ রানে বিজয়ী ঘোষণা কর হলো।

২৭৮ রানের টার্গেটে ব্যাটিংয়ে নেমে স্বাগতিকরা ৩৫ রানের মধ্যেই ৩ উইকেট হারায়! হ্যাজেলউড আর স্টার্কের গতির দাপটে জেসন রয় (৪), অ্যালেক্স হেলস (০) এবং জো রুট (১৫) প্যাভিলিয়নের পথ ধরেন। এর মধ্যে জেসন রয়কে দিয়ে সূচনা করেন স্টার্ক। বাকী দুই উইকেট নেন হ্যাজেলউড। ৬ষ্ঠ ওভারের খেলা শেষ হতেই আকাশ ভেঙে নেমে আসে বৃষ্টি। তবে অল্প সময় পরেই আবার শুরু হয় খেলা। দলের হাল ধরেন দলনেতা এউইন মরগ্যান এবং অলরাউন্ডার বেন স্টোকস। দুজনে মিলে ৪র্থ উইকেটে ১৫৯ রানের জুটি গড়েন।

সেঞ্চুরির খুব কাছে গিয়ে ৮১ বলে ৮ চার এবং ৫ ছক্কায় ৮৭ রান করা ইংলিশ অধিনায়ক এউইন মরগ্যান রানআউট হয়ে যান। উইকেটে থাকা বেন স্টোকসের সঙ্গী হন উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান জস বাটলার। এরপর বেন স্টোকস ১০৮ বলে ১৩ চার এবং ২ ছক্কায় তিন অংকে পৌঁছান। এই বদমেজাজী পেস বোলিং অলরাউন্ডারের ক্যারিয়ারের তৃতীয় সেঞ্চুরি এটি।

এর আগে টসে হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে ৪০ রানের ওপেনিং জুটি উপহার দেন দুই অজি ওপেনার ডেভিড ওয়ার্নার এবং অ্যারন ফিঞ্চ। মার্ক উডের বলে ওয়ার্নার (২১) উইকেটকিপার বাটলারের গ্লাভসবন্দী হলে ভাঙে এই জুটি। ফিঞ্চকে নিয়ে দলের হাল ধরেন অধিনায়ক স্টিভেন স্মিথ। দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে আসে ৯৬ রান। তবে ফিঞ্চের (৬৮) পর দ্রুত বিদায় নেন হেনরিকস (১৭) এবং স্টিভেন স্মিথ (৫৬)। হেনরিকসকে দিয়েই শিকার শুরু করেন রশিদ।

এই পর্যায়ে পঞ্চম উইকেটে ৫৮ রানের জুটি গড়ে বিপদ সামাল দেওয়ার চেষ্টা করেন গ্লেন ম্যাক্সওয়েল এবং ট্রেভিস হেড। মার্ক উড ম্যাক্সওয়েলকে (২০) ফেরানোর পর ভয়ঙ্কর হয়ে ওঠেন আদিল রশিদ। পর পর তার শিকার হন ম্যাথু ওয়েড (২), মিচেল স্টার্ক (০) এবং প্যাট কমিন্স (৪)। ম্যাচের এই পর্যায়ে ইংলিশ শিবিরে ক্যাচ মিসের মহোৎসব শুরু হয়ে যায়। অবশেষে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৯ উইকেটে ২৭৭ রানে থামে অজিরা। মার্ক উড এবং আদিল রশিদ দুজনেই ৪টি করে উইকেট নেন। ৬৪ বলে ৭১ রানে অপরাজিত থাকেন ট্রেভিস হেড।

Show More

আরো সংবাদ...

Back to top button