জেলার সংবাদ

বড় বোনকে নৃশংসভাবে হত্যা করল ছোট বোন!

ঢাকা, ১১ জুন, (ডেইলি টাইমস ২৪):

চোখ তুলে ও মুখের মধ্যে হাত ঢুকিয়ে শ্বাসরোধ করে বড় বোন লাকি বেগমকে খুন করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে তার ছোট বোন তাহমিনা আক্তার পপির বিরুদ্ধে।

শনিবার রাতে পারিবারিক বিরোধকে কেন্দ্র করে লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জ উপজেলার ইছাপুর ইউনিয়নের সৌন্দড়া গ্রামের ছৈয়াল বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

এলাকাবাসী পপিকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে।

রোববার সকালে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে পুলিশ।

নিহত লাকি বেগম একই বাড়ির মৃত বাদশা খলিফার বড় মেয়ে ও অভিযুক্ত পপি তার ছোট মেয়ে।

স্থানীয়রা জানায়, লাকি ও পপির মধ্যে দীর্ঘদিন থেকে পারিবারিক বিরোধ চলে আসছে। ওই বিরোধকে কেন্দ্র করে শনিবার রাতে ছোট বোন পপি বড় বোন লাকিকে ঘরে একা পেয়ে মুখ চেপে ধরে। এসময় জোরপূর্বক লাকির একটি চোখ তুলে ফেলে।

এতে লাকি অজ্ঞান হয়ে পড়লে তার মুখের ভেতর হাত ঢুকিয়ে দেয় পপি। দীর্ঘ সময় মুখের ভেতর হাত ঢুকিয়ে রাখায় শ্বাস বন্ধ হয়ে লাকি মারা যায়।

রামগঞ্জ থানার ওসি মো. তোতা মিয়া জানান, রোববার সকালে নিহতের স্বামী আলমগীর হোসেন বাদী হয়ে পপিকে আসামি করে থানা মামলা দায়ের করে। পরে পুলিশ দুপুরে পপিকে গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতের মাধ্যমে লক্ষ্মীপুর কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

Show More

আরো সংবাদ...

Back to top button