স্বাস্থ্য

খুব বেশি গ্রিন টি পান করা কী স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর?

ঢাকা, ১৯ জুন, (ডেইলি টাইমস ২৪):

ইউনিভার্সিটি অফ মেরিল্যান্ড মেডিকেল সেন্টারের মতে, গ্রিন টি স্বাস্থ্যকর অ্যান্টিঅক্সিডেন্টে পরিপূর্ণ এবং হৃদরোগের ঝুঁকি কমাতে সাহায্য করে, রক্তের চিনির মাত্রা নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে এবং ওজন কমতে সাহায্য করে। এতো সব উপকারিতা সত্ত্বেও অতিরিক্ত গ্রিন টি পান করার ফলে মারাত্মক পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া দেখা দিতে পারে। খুব বেশি গ্রিন টি পান করা স্বাস্থ্যের উপর যে ক্ষতিকর প্রভাব ফেলে সে বিষয়ে জেনে নিই চলুন।

১। ক্যাফেইন এর মাত্রাতিরিক্ততা

গ্রিন টি ক্যাফেইন সমৃদ্ধ পানীয়। তাই হৃদস্পন্দন দ্রুত হওয়া, পেটের সমস্যা, অস্থিরতা, উদ্বিগ্নতা, ইনসমনিয়া এবং কম্পনের মত পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি করতে পারে। যদি আপনি নিয়মিত গ্রিন টি পান করেন তাহলে আপনার শরীর ক্যাফেইন এর প্রতি নির্ভরশীল হয়ে পড়বে এবং আপনি যখন এটি পান করা বন্ধ করে দেবেন তখন আপনার মধ্যে বিরক্তিভাব, নিদ্রালুতা এবং মাথাব্যথার লক্ষণ দেখা দিতে পারে। পণ্যভেদে ক্যাফেইনের পরিমাণের ক্ষেত্রে পার্থক্য থাকতে পারে। কিন্তু কোন একটি বড় ব্র্যান্ডের গ্রিন টি এর প্রতি ব্যাগে ৩৫ মিলিগ্রাম ক্যাফেইন থাকে। ২০০-৩০০ মিলিগ্রাম ক্যাফেইন গ্রহণ করা যায়। তবে এর চেয়ে কম পরিমাণ গ্রহণ করেও আপনার পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা দিতে পারে, যদি আপনি এর প্রতি সংবেদনশীল হন।

২। আয়রনের শোষণে বাঁধা

চা এ ফ্লেভনয়েড নামক অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট থাকে যা আপনার শরীরে সুরক্ষা প্রভাব দিতে পারে। উদ্ভিজ খাদ্য যেমন- মটরশুঁটি, ফল ও সবজিতে পাওয়া যায় যে প্রধান আয়রন তাকে ননহেম আয়রন বলে। ফ্লেভনয়েড ননহেম আয়রনের সাথে যুক্ত হয়ে একে শরীরে শোষিত হওয়া প্রতিরোধ করে। অরিগন ষ্টেট ইউনিভার্সিটির লিনাস পলিং ইন্সটিটিউট এর মতে, খাওয়ার সময় গ্রিন টি পান করলে আয়রনের শোষণ ৭০ শতাংশ কমে। তাই খাওয়ার পর পরই চা পান করাকে সীমিত করুন। যদি ডিনারের পরে ১ কাপ চা পান না করে থাকা আপনার জন্য কষ্টকর হয় তাহলে চায়ের সাথে লেবুর রস মেশান, এতে আয়রন যুক্ত হয়ে যাওয়ার প্রভাব কমবে।

৩। মিষ্টি চা

যদি আপনি গ্রিন টি এর সাথে চিনি মেশান তাহলে আপনি অস্বাস্থ্যকর ক্যালোরি গ্রহণ করছেন। বোতলজাত গ্রিন টি এর প্রতি কাপে ৩০-৯০ ক্যালোরি থাকে। আপনার চায়ের কাপে প্রতি চামচ চিনিতে ১৬ ক্যালোরি থাকে।

৪। স্বাস্থ্য জটিলতা

যদিও গ্রিন টি পান করা নিরাপদ, তবে অতিরিক্ত পান করার ফলে স্বাস্থ্য সমস্যা তৈরি হতে পারে যেমন- দুশ্চিন্তায় ভোগেন যারা তাদের উদ্বিগ্নতা আরো বৃদ্ধি পায় এবং ডায়রিয়া হলে চা পান করলে সমস্যা আরো বৃদ্ধি পায়। মেডলাইন প্লাস এর মতে, অ্যানেমিয়া, গ্লুকোমা, হৃদরোগ বা ব্লিডিং সমস্যা থাকলে গ্রিন টি পান করা নিরাপদ নয়।

দিনে কতবার পান করা যায় গ্রিন টি?

দিনে ৫ বারের বেশি গ্রিন টি পান করা ঠিক নয়। দিনে ৩ কাপ গ্রিন টি পান করাই যথেষ্ট ওজন কমানোর জন্য। খালি পেটে গ্রিন টি পান করা ভালো, এতে অ্যান্টিঅক্সিডেন্টের শোষণ ভালো হয়।

Show More

আরো সংবাদ...

Back to top button