আইন ও আদালত

পঞ্চগড়ে চারমাস ধরে আদালত বর্জন আইনজীবীদের

ঢাকা, ২৩ জুন, (ডেইলি টাইমস ২৪):

পঞ্চগড়ে জ্যেষ্ঠ আইনজীবীদের সঙ্গে অসৌজন্যমূলক আচরণের অভিযোগে পঞ্চগড় সদরের জ্যেষ্ঠ সহকারী জজ এ জি এম মনিরুল হাসান সরকারের আদালত প্রায় চার মাস ধরে বর্জন করে আসছে আইনজীবীরা। এতে প্রায় চার হাজার দেওয়ানি মামলার বিচার কাজ ব্যাহত হচ্ছে। তিনি আবার একই সঙ্গে তেঁতুলিয়া, আটোয়ারী ও দেবীগঞ্জ উপজেলার সহকারী জজ হিসেবে অতিরিক্ত দায়িত্ব পালন করছেন। আদালত বর্জনের কারণে চারটি উপজেলার দেওয়ানী মামলার কার্যক্রম স্থবির হয়ে পড়েছে।
গত ৮ মার্চ আইনজীবী সমিতির কার্যালয়ে জেলা আইনজীবী সমিতির বিশেষ বর্ধিত সভা শেষে এই ঘোষণা দেওয়া হয়। সেই থেকে আদালত বর্জন অব্যাহত রয়েছে। আইনজীবীদের দাবি অবিলম্বে এই বিচারককে স্থানান্তর করা হোক। পঞ্চগড় জেলা আইনজীবী সমিতি সূত্রে জানা গেছে, পঞ্চগড় সদরের জজ আদালতের জ্যেষ্ঠ সহকারী জজ এ জি এম মনিরুল হাসান সরকার দায়িত্ব গ্রহণের পর থেকে আদালতে বিভিন্ন সময় জ্যেষ্ঠ আইনজীবীদের সাথে অসৌজন্যমূলক ও অবিচারক সুলভ আচরণ করেন।
গত ৭ মার্চ জ্যেষ্ঠ আইনজীবী মাহবুব উল আলমের সাথে অবিচারক সুলভ, অসৌজন্যমূলক আচরণ করায় আইনজীবীদের মাঝে ক্ষোভ দেখা দেয়। এ নিয়ে পরদিন ৮ মার্চ দুপুরে বিশেষ বর্ধিত সভা আহ্বান করে জেলা আইনজীবী সমিতি। সভায় সর্বসম্মতিক্রমে জ্যেষ্ঠ সহকারী জজ এ জি এম মনিরুল হাসানের অপসারণের দাবিসহ তার আদালত অনির্দিষ্টকালের জন্য বর্জনের ঘোষণা দেওয়া হয়।
আইনজীবী সমিতির সভাপতি অ্যাডভোকেট মির্জা নাজমুল ইসলাম কাজল বলেন, ‘জ্যেষ্ঠ সহকারী জজ এ জি এম মনিরুল হাসান আদালতে জ্যেষ্ঠ আইনজীবী মাহবুব উল আলমের সাথে অসৌজন্যমূলক, অবিচারক সুলভ আচরণ করেছেন।’
Show More

আরো সংবাদ...

Back to top button