রাজনীতি

সব দলের অংশগ্রহণে নিরপেক্ষ নির্বাচন দেখতে চায় কানাডা

ঢাকা, ০৬ নভেম্বর, (ডেইলি টাইমস ২৪):

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার সঙ্গে এক ঘণ্টারও বেশি সময় ধরে বৈঠকে করেছেন ঢাকায় সফররত কানাডার সংসদের প্রতিনিধিরা। সোমবার সন্ধ্যা ৭টা ৩৫ মিনিটে চেয়ারপারসনের গুলশানের রাজনৈতিক কার্যালয়ে বৈঠকটি শুরু হয়ে রাত ৮টা ৪০ মিনিটে শেষ হয়।

বৈঠক শেষে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সাংবাদিকদের বলেন, ‘বৈঠকে প্রাণবন্ত আলোচনা হয়েছে। ছয় সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল বৈঠকে অংশ নিয়েছেন। তারা সকলের অংশগ্রহণে বাংলাদেশে একটি অবাধ সুষ্ঠু নিরপেক্ষ নির্বাচন দেখতে চান।’

বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘কানাডার প্রতিনিধিরা বাংলাদেশে একটি ইনক্লুসিভ নির্বাচন দেখতে চায়। যেখানে সব দলের অংশগ্রহণ থাকবে।’

বৈঠকে কানাডার প্রতিনিধিরা বিএনপির কাছে অনেক বিষয়ে জানতে চেয়েছে আবার তারা যা জানে তাও আমাদেরকে জানিয়েছে বলেও জানান মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

রাজনৈতিক দলের সঙ্গে নির্বাচন কমিশনের সংলাপের মূল প্রস্তাবনাগুলো কানাডার প্রতিনিধিরা সংগ্রহ করেছেন জানিয়ে বিএনপি মহাসচিব বলেন, বৈঠকে এসব বিষয় নিয়েও আলোচনা প্রাধান্য পেয়েছে।

এছাড়া রোহিঙ্গা ইস্যু ও চলমান রাজনীতির নানা দিক নিয়ে আলোচনা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

কানাডার সংসদ সদস্য ইয়াসমিন রাস্তান্সকির নেতৃত্বে কানাডার সংসদীয় প্রতিনিধি দলে দেশটির সংসদ সদস্য সালমা আতাউল্লাহ জাহ্, থমাস মুলকার, ঢাকাস্থ কানাডিয়ান হাইকমিশনার বেনওয়াট প্রিফনথিন, কোওয়ার্ডিনেটর সৈয়দ শাহ নেওয়াজ মহসিন উপস্থিত ছিলেন।

অন্যদিকে বিএনপির পক্ষ থেকে খালেদা জিয়া ছাড়াও দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার জমির উদ্দিন সরকার, আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী, বিএনপির বিশেষ সম্পাদক ড. আসাদুজ্জামান রিপন উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে, সকাল পৌনে ১১টার সময় যুক্তরাষ্ট্রের রাজনীতি বিষয়ক আন্ডার সেক্রেটারি টমাস এ শ্যাননের নেতৃত্বে ৬ সদস্যের একটি প্রতিনিধিদলের সঙ্গে বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার বৈঠক করেন। পৌনে এক ঘণ্টা বৈঠক শেষে দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলগমগীর সাংবাদিকদের জানান, যুক্তরাষ্ট্রের রাজনীতিবিষয়ক আন্ডার সেক্রেটারি টমাস এ শ্যাননের সঙ্গে চলমান রাজনীতি ও রহিঙ্গা ইস্যু, আগামী নির্বাচনসহ বিভিন্ন বিষয়ে বিএনপির আলোচনা হয়েছে। এ আলোচনা ফলপ্রসূ হয়েছে বলেও জানান তিনি।

Show More

আরো সংবাদ...

Back to top button