রাজনীতি

প্রধানমন্ত্রী কী চুক্তি করে এলেন, সেটা জানার অধিকার জনগণের আছে

ঢাকা , ১০ অক্টোবর, (ডেইলি টাইমস২৪):

বিএনপি নেতা আবু সুফিয়ান বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী ভারতে গিয়ে কী চুক্তি করে এলেন, সেটা জানার অধিকার জনগণের আছে। আমরা কী দিলাম, কী পেলাম-সেটা জানার অধিকার তো আমাদের আছে। কিন্তু বাংলাদেশে এখন নির্বাচিত কোনো সরকার না থাকায় বারবার জনগণের স্বার্থ জলাঞ্জলি দেয়া হচ্ছে।

৬৫ সদস্যের আহ্বায়ক কমিটি ঘোষণার এক সপ্তাহের মাথায় বৃহস্পতিবার (১০ অক্টোবর) সকালে প্রথম সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা বিএনপির নবগঠিত কমিটির আহ্বায়ক আবু সুফিয়ান। চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবে এ সংবাদ সম্মেলনে হয়।

দেশের সাম্প্রতিক পরিস্থিতি নিয়ে আবু সুফিয়ান বলেন, ‘আমাদের গণতান্ত্রিকভাবে কোনো কর্মসূচি পালন করতে দিচ্ছে না বর্তমান সরকার। রাস্তায় মিছিল দূরে থাক, সামান্য সভা-সমাবেশেও বাধা দেয়া হচ্ছে। প্রশাসনের বিভিন্ন নিয়মের কথা বলে আমাদের সাংবিধানিক অধিকার খর্ব করা হচ্ছে।’

বুয়েটের ছাত্র আবরার হত্যার প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘পরিকল্পিতভাবে নৃশংস কায়দায় পিটিয়ে আবরারকে খুন করা হয়েছে। এটার নিন্দা জানানোর ভাষা আমাদের জানা নেই। এর প্রতিবাদে ছাত্রদলসহ বিভিন্ন সংগঠন আন্দোলন করছে। কিন্তু সরকারি দল ও ছাত্রলীগ সেখানেও তাদের বাধা দিচ্ছে। আমরা এর নিন্দা জানাচ্ছি।’

সুফিয়ান বলেন, ‘আমাদের চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি, জনগণের হারানো ভোটের অধিকার ফেরত আনা এবং গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের দাবিতে চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা বিএনপি আন্দোলন করে যাবে।’

আগামী ৯০ দিনের মধ্যেই দক্ষিণ জেলার সম্মেলন হবে জানিয়ে আবু সুফিয়ান বলেন, ‘আমাদের ব্যক্তিগত কোনো এজেন্ডা নেই। কাউকে প্রতিষ্ঠিত করা বা কাউকে বাদ দেয়ার এজেন্ডা আমাদের নেই। আমাদের কাছে দল সবকিছুর ঊর্ধ্বে। সবাই আমাদের সহযোগিতা করছেন। আমরা ৯০ দিনের মধ্যেই দক্ষিণ জেলার সম্মেলন করতে পারব। তবে এর আগে তৃণমূলের সকল কমিটি ভেঙে দিয়ে আহ্বায়ক কমিটি গঠন করা হবে। সম্মেলনের সময় পর্যন্ত আমাদের সুনির্দিষ্ট রাজনৈতিক কর্মসূচি চলমান থাকবে। সাংগঠনিক কর্মসূচিও চলবে।’

আবু সুফিয়ান জানান, আগামীকাল শুক্রবার বিকেল তিনটায় নবগঠিত আহ্বায়ক কমিটির প্রথম সভা হবে। শনিবার ঢাকায় দলের প্রতিষ্ঠাতা সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের মাজার জেয়ারতের মধ্য দিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে সাংগঠনিক কর্মকাণ্ড শুরু হবে।

সংবাদ সম্মেলনে চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা বিএনপির বিদায়ী কমিটির সভাপতি জাফরুল ইসলাম চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক শেখ মোহাম্মদ মহিউদ্দিন, নতুন কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক আলী আব্বাস, সদস্যসচিব মোস্তাক আহমেদ খান, সিনিয়র সদস্য এস এম মামুন মিয়া প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

Show More

আরো সংবাদ...

Back to top button
Close