জেলার সংবাদ

করোনা ঝুঁকিতে বেনাপোল পৌর এলাকা

ঢাকা ,২৭জুন,(ডেইলি টাইমস২৪): বেনাপোল প্রতিনিধিঃ
সারাবিশ্বে করোনা ভ্ইারাস মহামারি আশঙ্কা জনক হারে বাড়ছে। তার কমতি নেই বাংলাদেশ সহ সীমান্তের গুরুত্ব পুর্ন প্রবেশ দ্বার বেনাপোল শহরেও। এই জনপদের শুধুমাত্র বেনাপোল পৌরসভা এলাকায় চলতি মাসে প্রায় ১৩ জন করোনা ভাইরাসের পজিটিভ রিপোর্টে সনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে স্বাস্থ্য কর্মী, ব্যাবসায়ি, পুলিশ ও ছাত্রলীগের একজন কর্মী ও রয়েছে। এর মধ্যে তিনজন করোনা ভাইরাস এর উপসর্গ নিয়ে মারা গেছে। তবুও বেনাপোল বাজারে লোক সমাগম প্রচুর পরিমানে ঘটছে। এসব কথা ভেবে বেনাপোল পৌরসভার স্বাস্থ্য বিভাগ ও উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগের সমন্বয়ে গতকাল প্রধান সড়কে ভ্যান, রিক্সা ও ইজিবাইক চলাচলের বন্ধ থাকার জন্য মাইকিং করে। বাজারের বিপুল সংখ্যক লোক সমাগম দেখে বেনাপোল বাজার কমিটি ও পৌরকর্তৃপক্ষ গত দুইদিন আগে ফুটপাত সহ সকল জনসমাগম ঘটানো দোকান বন্ধ করে দেয়। এরপর বাজার কমিটি ও পৌর কর্তৃপক্ষ চলে গেলে আবারও ওই দোকানিরা ফুটপাতে বসে পড়ে তাদের দোকান নিয়ে। তারই ধারবাহিকতায় আজ সকাল ১০ ঘটিকার সময় বেনাপোল বাজার নিয়ন্ত্রন কমিটি আবারও মাঠে নামে।

শনিবার বেলা ১০ টার সময় বেনাপোল বাজারের প্রধান কাঁচাবাজার, মাছ বাজার ও ফুটপাত এলাকা বেনাপোল বাজার নিয়ন্ত্রন কমিটি মাইকিং করে সকল ব্যবসায়িদের বেনাপোল বলফিল্ডে চলে যেতে বলে। এরপর ব্যাবসায়িদের তাদের দোকান গোছাতে দেখা যায়। বেনাপোল পৌরসভা রাষ্ট্রের একটি গুরুতপুর্ন প্রবেশদ্বার ও একটি বৃহৎ স্থল বন্দর। এ পথে প্রতিদিন ভারত থেকে পাসপোর্ট যাত্রী ও আমদানি পন্যর গাড়ি নিয়ে প্রবেশ করছে হাজার হাজার মানুষ। এদের মাধ্যেমে করোনা বিস্তার ঘটতে পারে বলেও অনেকে এরই মধ্যে মন্তব্য করছে। কারন পন্যবাহি ভারতীয় ট্রাকের সাথে আসে সেদেশের বিভিন্ন প্রদেশের চালক ও হেলপার।

বেনাপোল পৌর প্যানেল মেয়র সাহাবুদ্দিন মন্টু বলেন, আমরা গত কয়েকদিন যাবৎ বাজারে লোক সমাগম যাতে না ঘটে সেই লক্ষে কাজ করছি। কিন্তু মানুষ সচেতন না। এরা আমরা চলে গেলে আবার একই কাজ করে যাচ্ছে। এর জন্য গতকাল জরুরী ভাবে উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ও বেনাপোল পৌর স্যানেটারি ইন্সপেক্টর এর সমন্বয়ে একটি বৈঠক করা হয়। ওই বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয় বেনাপোল বাজারে বিভিন্ন জায়গা থেকে আসা ইজিবাইক, ভ্যান ও রিক্সা আগামি ২১ দিন বন্ধ থাকবে।

বেনাপোল বাজার কমিটির সভাপতি আজিজুর রহমান বলেন, আমরা প্রায় প্রতিদিন বাজারে লোক সমাগম বন্ধের জন্য প্রচার প্রচারনা চালিয়ে যাচ্ছি। তারপরও মানুষ সচেতন না হওয়ার ফলে যা তাই হয়ে যাচ্ছে। এর জন্য আজ বাজার নিয়ন্ত্রন কমিটির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী মাছ বাজার, কাঁচা বাজার ও মাংস বাজার বেনাপোল বলফিল্ডে স্থানান্তরিত করা হয়েছে।
এসময় উপস্থিত ছিলেন বাজার কমিটির সহ-সভাপতি আলাউদ্দিন বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ সেচ্ছাসেবক লীগের বেনাপোল পৌর কমিটির সভাপতি ও বেনাপোল বাজার কমিটির যুগ্ম সাধারন সম্পাদক জুলফিকার আলী মন্টু, কোষাধ্যাক্ষ আব্দুল হামিদ, সদস্য আনিছুর রহমান প্রমুখ।

ঢাকা ,২৭জুন,(ডেইলি টাইমস২৪)/আর এ কে

Show More

আরো সংবাদ...

Back to top button