অর্থ ও বাণিজ্যজেলার সংবাদপ্রধান সংবাদ

বেনাপোল – পেট্রাপোল বন্দরে আবারও আমদানি বানিজ্য বন্ধ

ঢাকা ,০১জুলাই,(ডেইলি টাইমস২৪): বেনাপোল প্রতিনিধিঃ
রফতানি পন্য ভারত গ্রাহন না করায় বাংলাদেশী ব্যবসায়িরা রফতানি পন্য গ্রহনের দাবিতে আমদানি বানিজ্য বন্ধের ডাক দেয়। বুধবার সকাল সাড়ে ৯ টার সময় বেনাপোল চেকপোষ্টে আমদানি পন্য বন্ধের ঘোষনা দেন ব্যবসায়িরা। এ সময় চেকপোষ্ট এলাকায় সিএন্ডএফ এজেন্ড কর্মচারীরা ও ভারত রফতানি পন্য না নিলে আমদানি পন্য বানিজ্য বন্ধের সাথে একাত্নতা ঘোষনা করেন।

সারা বিশ্বে করোনা মহামারি দুর্যোগের জন্য বেনাপোল স্থল বন্দর দিয়ে আমদানি রফতানি বানিজ্য বন্ধ হয়ে যায়। দীর্ঘ ৭৫ দিন বন্ধ থাকার পর অবশেষে গত ৬ জুন এ পথে আমদানি বানিজ্য চালু হলেও রফতানি বানিজ্য বন্ধ রয়েছে। ভারত সরকার ও সেদেশের ব্যবসায়িরা সেদেশের পন্য বাংলাদেশে ঢোকার অনুমতি দিলেও বাংলাদেশী রফতানি পন্য নিতে তারা অস্বীকার করছে। বেনাপোল চেকপোষ্ট এলকাায় রফতানি পন্যর গাড়ি দাঁড়িয়ে আছে। এসব গাড়িতে গার্মন্টস পন্য ও পাটজাত পন্য থাকায় রোদ বৃষ্টিতে ভিজে যেয়ে নষ্ট হওয়ার ্আশঙ্কা করছে ব্যবসায়িরা।

বেনাপোল সিএনএফ কর্মচারী ইউনিয়ন এর সাধারন সম্পাদক সাজেদুর রহমান বলেন, ভারত আমদানি পন্য দিলেও তারা রফতানি পন্য গ্রহন করছে না। যার জন্য রফতানি কারক ব্যবসায়িরা আমদানি বানিজ্য বন্ধের ডাক দেয়। এর জন্য আজ সকাল সাড়ে ৯ টা থেকে ভারত থেকে কোন আমাদানি পন্য বাংলাদেশে প্রবেশ করে নাই। বেনাপোল বন্দরে ভারতে প্রবেশের অপেক্ষায় প্রায় ৭/৮ শত রফতানি বাহি পন্য নিয়ে দাঁড়িয়ে আছে বিভিন্ন রোডে। এদিকে রফতানি পন্য ভারতে ঢুকাতে না পেরে ট্রাকের ডেমারেজ দিতে হচ্ছে রফতানি কারকদের।

বেনাপোল কাস্টমস এর কার্গো শাখার সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা শামিমুর রহমান বলেন রফতানি পন্য ভারত গ্রহন না করায় বাংলাদেশের ব্যবসায়িরা আমদানি বানিজ্যে বন্ধের ঘোষনা দেয় । যার জন্য সকাল সাড়ে ৯ টা থেকে বানিজ্য বন্ধ রয়েছে।

ভারতের পেট্রাপোল বন্দরের সিএন্ডএফ ওয়েলফেয়ার সংগঠনের সাধারন সম্পাদক কার্তিক চন্দ্র বলেন, করোনা ভাইরাসের কারনে রফতানি পন্য নেওয়া হচ্ছে না। বাংলাদেশের ব্যবসায়িরা যদি মনে করে তারা এই ভাইরাসের কারনে আমদানি পন্য নিবে না তাহলে সেটা তাদের ব্যাপার। আমাদের বিধি নিষেধ থাকার কারনে আমরা বাংলাদেশ থেকে রফতানি পন্য নিতে পারছি না।

ঢাকা ,০১জুলাই,(ডেইলি টাইমস২৪)/আর এ কে

Show More

আরো সংবাদ...

Back to top button
Close