স্বাস্থ্য

অন্তঃসত্ত্বা নারী কফি খেলে গর্ভস্থ শিশুর হতে পারে বিপদ

ঢাকা ,২৫আগস্ট,(ডেইলি টাইমস২৪): অন্তঃসত্ত্বা নারী কফি খেলে গর্ভস্থ শিশুর স্বাস্থ্যের জন্য হতে পারে বিপদ। অল্পস্বল্প কফি খেলেও গর্ভপাত হওয়ার আশঙ্কা আছে। এমনকি মৃত শিশুর জন্ম হতে পারে। আর যদি শিশু ঠিকমতো জন্মায়ও তার ওজন কম হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। এক গবেষণা বলছে, গর্ভাবস্থায় কফি পান একেবারেই বন্ধ করার চেষ্টা করুন।

২০ থেকে ৪৮ বছর বয়সী নারীদের ওপর হয়েছে এই সমীক্ষা। ইংল্যান্ডের রয়্যাল কলেজের প্রসূতি ও স্ত্রী রোগ বিভাগ বলছে, মেয়েদের প্রতিদিন ২০০ মিলিগ্রামের বেশি ক্যাফেইন খাওয়া একেবারেই উচিত না। অর্থাৎ তারা দিনে সর্বাধিক দুকাপ কফি খেতে পারেন। গবেষণার নেতৃত্বে ছিলন অধ্যাপক জ্যাক জেমস।

তিনি বলেন, কম মাত্রার ক্যাফেইন গর্ভপাতের আশঙ্কা ৩৬ শতাংশ বাড়িয়ে দেয়। মৃত শিশুর জন্মের আশঙ্কা বেড়ে যায় ১৯ শতাংশ আর জন্মের সময় শিশুর ওজন স্বাভাবিক ওজনের ৫১ শতাংশ কমে যেতে পারে। আবার শৈশবে লিউকোমিয়া রোগ আর স্থূলত্বের আশঙ্কা থেকে যাচ্ছে।

জেমসের অনুমান, প্রতিদিন যদি ব্রিটেনের প্রত্যেক গর্ভবতী ২০০ মিলিগ্রাম করে ক্যাফেইন সেবন করেন তবে ৭০,০০০ শিশু ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে। তার ভাষ্যমতে, কফি রক্তে মিশে অর্ধেক হয়ে যেতে ঘণ্টাপাঁচেক সময় নেয়। তারপর তার মাত্রা ধীরে ধীরে কমতে থাকে। গর্ভাবস্থায় এই সময় আরও বেশি লাগে। গর্ভাবস্থার ১৮ সপ্তাহে অর্ধেক ক্যাফেইন রক্তে মিশতে ১৮ ঘণ্টা সময় লাগতে পারে। অর্থাৎ দীর্ঘ সময় শিশু ড্রাগের প্রকোপে থাকবে। এর প্রভাব পড়বে তার শারীরিক বিকাশে।

যদিও আর এক গবেষক অ্যাডাম জ্যাকবের সিদ্ধান্ত জেমসের থেকে ভিন্ন। এই গবেষণায় শিশুর যে শারীরিক ক্ষতির কথা বলা হয়েছে, শুধু ক্যাফেইন তার কারণ নয়। অন্যান্য গবেষকরাও জেমসের গবেষণা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন। গর্ভাবস্থায় অল্প মাত্রায় কফি পান করাই যায়, তাদের দাবি। সূত্র- ডেইলি মেইল।

ঢাকা ,২৫আগস্ট,(ডেইলি টাইমস২৪) /আর এ কে

Show More

আরো সংবাদ...

Back to top button