রাজনীতি

সার্বভৌমত্বের প্রশ্নে কোন আপোষ নাই : গোলাম মাওলা

ঢাকা,১৩ সেপ্টেম্বর,(ডেইলি টাইমস২৪): ১৯৭১’র মুক্তিযুদ্ধের বীর সেনানী ইসমাইল হোসেন বেঙ্গল বিশ্বাস করতে গণতন্ত্রের প্রশ্নে, স্বাধীনতা-সার্বভৌমত্বে প্রশ্নে কোন আপোষ নাই। মুক্তিযুদ্ধ সহ দেশমাতৃকার কল্যাণে তার অবদান জাতি শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করবে বলে অভিমত প্রকাশ করেছেন জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের কেন্দ্রীয় নেতা ও গণদল চেয়ারম্যান এটিএম গোলাম মাওলা চৌধুরী।

শনিবার (১২ সেপ্টেম্বর) নয়াপল্টনের যাদু মিয়া মিলনায়তনে ৭১’র রঙ্গানের বীর সেনানী ইসমাইল হোসেন বেঙ্গলের মৃত্যুতে জাতীয় কৃষক-শ্রমিক মুক্তি আন্দোলন আয়োজিত আলোচনা সভা ও দোয়া অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, ইসমাইল হোসেন বেঙ্গলের মৃত্যুতে জাতির মধ্যে যে শূণ্যতা সৃষ্টি হয়েছে তার পূরন করা খুবই কঠিন। আজীবন গণতন্ত্রের জন্য সংগ্রাম করে গেছেন।

সংগঠনের আহ্বায়ক ও বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি-বাংলাদেশ ন্যাপ মহাসচিব এম. গোলাম মোস্তফা ভুইযা’র সভাপতিত্বে আলোচনায় অংশ গ্রহন করেন বাংলাদেশ গণসংস্কৃতি দল-বাগসদ চেয়ারম্যান সরদার শামস আল মামুন, সংগঠনের যুগ্ম আহ্বায়ক ও ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক পার্টি-এনডিপি মহাসচিব মো. মঞ্জুর হোসেন ঈসা, জাতীয় জনতা ফোরাম সভাপতি মোহাম্মদ ওয়ালিদ সিদ্দিকী তালুকদার, সংগঠনের সমন্বয়ক মো. মহসিন ভুইয়া, শ্রমিক নেতা আবদুল্লাহ আল কাউছারী প্রমুখ।

সভাপতির বক্তব্যে বাংলাদেশ ন্যাপ মহাসচিব এম. গোলাম মোস্তফা ভুইয়া জাতীয় বীর ইসমাইল হোসেন বেঙ্গলের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন বলেন, দেশের রাজনীতি আজ দুর্বৃত্তায়নের কবলে বলেই দুর্নীতি আর দুর্বৃত্তরা সমাজ ও রাষ্ট্র নিয়ন্ত্রনের চেষ্টা করছে যা আগামী দিনে জন্য অশুভ ইঙ্গিত বহন করছে।

তিনি বলেন, রাজনীতিকে দুর্বৃত্তদের কালো থাবা থেকে মুক্ত করতে ইসমাইল হোসেন বেঙ্গলের মত দেশপ্রেমিক ও মেধাবীদেরকে মূল্যায়ন করতে হবে, স্মরণ করতে হবে। বেঙ্গল ভাই রাজনীতিতে বার বার প্রতারনার শিকার হয়েছেন।

বাগসদ চেয়ারম্যান সরদার শামস আল মামুন বলেন, আমাদের জাতীয় রাজনীতির দলীয় নোংরা খেলায় অনেকটা অনাদরেই চলে গেছেন বেঙ্গল ভাই। আজ সমাজে রাজনীতিকদের গ্রহণযোগ্যতা একেবারেই শূন্যের কোটায়। ফলে মেধাবী ও শিক্ষিতরা এখন আর রাজনীতিতে আসছে না। এখানে চাটুকার আর মেধাহীনরা রাজনীতির প্রথম কাতারে থেকে নেতৃত্ব দিচ্ছে। আর এই কারণেই বেঙ্গল ভাইরা অবহেলার শিকার হয়েছেন।

এনডিপি মহাসচিব মো. মঞ্জুর হোসেন ঈসা বলেন, মুক্তিযোদ্ধারা নিজেদের জীবন উৎসর্গ করে দেশ স্বাধীন না করলে আজ আমরা কোনোভাবেই নিজেদের স্বাধীন জাতি ভাবতে পারতাম না, পরাধীনতার শিকল হয়তো আমাদের আজও তাড়া করে বেড়াত। ইসমাইল হোসেন বেঙ্গলকে জাতি স্মরণ করবে জাতীয় অহঙ্কার হিসাবেই।

স্মরণসভায় বীর সেনানী ইসমাইল হোসেন বেঙ্গলের রুহের মাগফেরাত কামনা করে বিশেষ দোয় ও মোনাজাত করা হয়।

ঢাকা,১৩ সেপ্টেম্বর,(ডেইলি টাইমস২৪) /আর এ কে

Show More

আরো সংবাদ...

Back to top button
Close