জেলার সংবাদ

ভাঙ্গায় সংসদ সদস্য নিক্সন চৌধুরীর মসজিদের নির্মাণ কাজ পরিদর্শন

ঢাকা, ২৩ অক্টোবর(ডেইলি টাইমস২৪): ভাঙ্গা(ফরিদপুর) প্রতিনিধিঃ ফরিদপুর-৪ আসনের সাংসদ মজিবুর রহমান চৌধুরী নিক্সন প্রায় ৫ কোটি টাকা ব্যায়ে নির্মানাধীন ভাঙ্গা কেন্দ্রীয় ঈদগাহ জামে মসজিদের নির্মাণ কাজ পরিদর্শন করেছেন।সম্প্রতি সংসদ সদস্যের নামে ইসির মামলা দায়ের এবং জামিনের পর প্রথম তিনি নির্বাচনী এলাকায় আসেন। বৃহস্পতিবার বিকেলে তার আগমনের সংবাদে নেতা-কর্মীসহ উৎসুক বহ লোক আগে থেকেই বৃষ্টি উপেক্ষা করে ঈদগাহ মাঠে ভিড় জমায়।মসজিদের নির্মাণ কাজ পরিদর্শন শেষে একটি ট্রাকের ওপর উঠে তিনি নেতা-কর্মীদের উদ্যেশ্যে বলেন, আমার রাজনীতি জনগণের জন্য।জনগণের উন্নয়ন ও মূল্যায়নই আমার মুল লক্ষ্য। আমি নির্বাচন কমিশনের পক্ষ হতে আচরণ বিধি ভঙ্গের মামলা খেয়েছি এর জন্য আমার কোন ভয় নেই। আমি আমার নেতা-কর্মীর জন্য প্রয়োজনে ফাঁসির মে যেতেও প্রস্তুত আছি। ফরিদপুর-৪ আসনের জনগণ আমাকে ভোট দিয়ে দুইবার এমপি নির্বাচিত করেছেন। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশকে উন্নয়ন দিয়ে বিশ্ব দরবারে বাংলাদেশকে যেমন রোল মডেল হিসাবে পরিচিতি করিয়েছেন ঠিক তেমনি তার অনুপ্রেরণায় ফরিদপুর-৪ আসনে প্রতিটি রাস্তা-ঘাট, বিদ্যুৎ, ব্রিজ, কালভার্ট,শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ভবনসহ নানা উন্নয়ন করে বাংলাদেশের মধ্যে ফরিদপুর-৪ আসনকে রোল মডেল হিসাবে রূপ দিয়েছি। সবই সম্ভব হয়েছে জনগণের জন্য আর মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর জন্য।মজিুবর রহমান চৌধুরী মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে বিচার চেয়ে বলেন, ফরিদপুরের ডিসি ভাঙ্গার জনগণের ভূমি অধিগ্রহণের টাকা যেভাবে আত্মসাৎ করেছেন এবং ভাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও সহকারী কমিশনার ভূমি যেভাবে ভাঙ্গার জনগণের কাছ থেকে টাকা চুষে নিয়ে যাচ্ছে তার বিচার যেন করা হয়। তিনি সহকারী কমিশনানের বিরুদ্বে সরকারি জমি বন্দোবস্ত দেওয়ার নামে এবং খাস জমির ওপর বহুতল ভবন নির্মাণ করতে দিয়ে কোটি কোটি টাকা আত্মসাৎ করছে। ভূমি অফিসটি এখন দুর্নীতির স্বর্গরাজ্যে পরিণত হয়েছে। ভাঙ্গার জনগণ এসবের সঠিক বিচার চায়। নিক্সন চৌধুরী আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য কাজী জাফর উল্লাাহকে উদ্দেশ্য করে তিনি আরও বলেন, পানামা কেলেঙ্কারিসহ তার নমিনেশন বাণিজ্যের কারণে আওয়ামী লীগকে ধ্বংস করার যে নীল নকশা সে করছে তারও বিচার করতে হবে। এসময় অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এস,এম হাবিবুর রহমান, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান শাহাদাৎ হোসেন, জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান শেখ শাহিনুর রহমান শাহিন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ স¤পাদক ফাইজুর রহমান, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মাওলানা ইসাহাক মোল্লা, ইউপি চেয়ারম্যান বাবু পরিমল দাস, ইউপি চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট শামচুল আলম রাসেল, থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শফিকুর রহমান, সাবেক জিএস লাবলু মুন্সি, আওয়ামী লীগ নেতা ইসমাইল মুন্সি, স্কুল এন্ড কলেজের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি মতিয়ার রহমান প্রমুখ।

ঢাকা, ২৩ অক্টোবর(ডেইলি টাইমস২৪)/আর এ কে

Show More

আরো সংবাদ...

Back to top button