জাতীয়প্রধান সংবাদ

পদ্মাসেতুর ৫.১ কিলোমিটার দৃশ্যমান

ঢাকা, ২৫ অক্টোবর(ডেইলি টাইমস২৪): দ্বিতীয় দিনের প্রচেষ্টায় পদ্মা সেতুতে ৩৪তম স্প্যান ‘টু-এ’ বসানো শেষ হয়েছে। রোববার সকালে মুন্সীগঞ্জের মাওয়া প্রান্তে ৭ ও ৮নং পিয়ারের উপর বসানো হয় স্প্যানটি। স্প্যানটি বসানোর ফলে দৃশ্যমান হলো সেতুর ৫ হাজার ১০০ মিটার অর্থাৎ ৫.১ কিলোমিটার।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন পদ্মা সেতুর নির্বাহী প্রকৌশলী (মূল সেতু) দেওয়ান মো, আব্দুল কাদের। তিনি জানান, শনিবার বিকালে কনস্ট্রাকশন ইয়ার্ড থেকে মডিউল নং ২এর স্প্যানটি ভাসমান ক্রেনের সাহায্য নির্ধারিত পিয়ারের কাছে নোঙর করে রাখা হয়। তবে বৈরি আবহাওয়া ও ঝড়ো বাতাসের কারণে পরবর্তীতে স্প্যানটি উপরে তোলা যায়নি।

তিনি আরো জানান, রোববার সকাল সাড়ে ৮টা থেকে ক্রেনটির সাহায্য পুনরায় পজিশন অনুযায়ী ইঞ্চি ইঞ্চি মেপে ধূসর রংয়ের ১৫০মিটার দৈর্ঘ্যের স্প্যানটি তোলার চেষ্টা করা হয়। এতে সময় লাগে কয়েক ঘন্টা। সকাল সোয়া ১০টার দিকে ৭ ও ৮নং পিয়ারের থাকা ভূমিকম্প সহনশীল বিয়ারিংয়ের উপর স্প্যানটি সম্পূর্ণভাবে বসানো হয়।

৩৩তম স্প্যান বসানোর ছয়দিনের মাথায় ৩৪তম স্প্যানটি বসানো হলো। পদ্মা সেতুতে স্প্যান বসানোর কার্যক্রমের একটি স্প্যান বসানোর পর সর্বোচ্চ কম সময়ের ব্যবধানে ৩৪তম স্প্যান বসানো হলো। এর আগে শনিবার ৩৪তম স্প্যানটি বসানোর পরিকল্পনা করা হলেও দিনভর চেষ্টা করাও বৈরি আবহওয়ার কারণে স্প্যানটি বসানো যায়নি।

এদিকে ৩৪তম স্প্যানটি বসে যাওয়ায় সেতুতে বাকি রইলো ৭টি স্প্যান। যেগুলো সবগুলো সেতুর মাওয়া প্রান্তে বসানো হবে। ইতিমধ্যেই জাজিরা প্রান্তে সবগুলো স্প্যান বসানোর কাজ শেষ হয়েছে। এর আগে গত ১৯অক্টোবর পদ্মা সেতুতে বসানো হয়েছিলো ৩৩তম স্প্যান।

পদ্মা সেতু সূত্রে জানা গেছে, ৩৪তম স্প্যানের পরে আগামী ৩০ অক্টোবর ২ এবং ৩ নম্বর পিয়ারের ওপর ৩৫তম স্প্যান, নভেম্বর মাসের ৪ তারিখ ৩৬তম স্প্যান বসানোর পরিকল্পনা রয়েছে। আর আগামী ১০ডিসেম্বরের মধ্যে সকল স্প্যান বাসানোর নির্দেশনা রয়েছে সেতু সচিবের।

২০১৪ সালের ডিসেম্বরে পদ্মা সেতুর নির্মাণকাজ শুরু হয়। ২০১৭ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর ৩৭ ও ৩৮ নম্বর খুঁটিতে প্রথম স্প্যান বসানোর মধ্য দিয়ে দৃশ্যমান হয় পদ্মা সেতু।

ঢাকা, ২৫ অক্টোবর(ডেইলি টাইমস২৪)/আর এ কে

Show More

আরো সংবাদ...

Back to top button