জেলার সংবাদলিড নিউজ

চট্টগ্রামের মীরসরাইয়ে যুবলীগের দু’গ্রুপের সংঘর্ষ: সম্মেলন পন্ড, অর্ধশতো আহত

ঢাকা, ১১ নভেম্বর (ডেইলি টাইমস২৪): এম, এ কাশেম ॥ মীরসরাই (চট্টগ্রাম) থেকে ফিরেঃ উত্তর চট্টগ্রামের মীরসরাই উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের প্রকিষ্ঠা বার্ষিকী এবং সম্মেলন কে ঘিরে আয়োজিত সমাবেশ বিবদমান দু’গ্রুপের তুমুল সংঘর্ষের কারণে পন্ড হয়ে গেছে। ঘটনায় উভয় গ্রুপের প্রাায় ৪৩ জন নেতা-কর্মী আহত হয়েছে বলে প্রত্যক্ষদর্শি একাধিক সূত্র জানিয়েছে। সূত্র জানায়, গতকাল বুধবার (১১ নভেম্বর) বিকাল ৩টায় পূর্ব নিদ্ধারিত মীরসরাই সদরস্থ সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় (মডেল হাইস্কুল) মাঠে আয়োজিত সমাবেশে এ হামলার ঘটনা ঘটে। সূত্র জানায়, সমাবেশে আগত নেতা-কর্মীদের উদ্ধত আচরণ, হামলা পাল্টা হামলা ও ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনায় সমাবেশ বন্ধ করে দেন প্রধান অতিথি আওয়ামী লীগ নেতা ও সাবেক মন্ত্রী-মীরসরাইয়ের আওয়ামী দলীয় এমপি ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেনের পুত্র মাহবুবুর রহমান রুহেল। সূত্রে পাওয়া তথ্যে জানা গেছে, আওয়ামী যুবলীগের ৪৮তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে গতকাল বুধবার বিকাল ৩টায় উপজেলা সদরের মডেল সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে আয়োজিত সামাবেশে প্রধান অতিথি ছিলেন মীরসরাইয়ের আওয়ামী দলীয় এমপি ও আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য এবং সাবেক গৃহায়ণ ও গণপূর্তমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন এমপি’র পুত্র মাহবুবুর রহমান রুহেল। সমাবেশের এক পর্যায়ে শ্লোগান-পাল্টা শ্লোগান দেয়াকে কেন্দ্র করে স্থানীয় যুবলীগের দু’গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষেও সূত্রপাত: ঘটে। এ সময় এক পক্ষ ওপর পক্ষ কে কাঁচের বোতল ভেঙে নিক্ষেপ করে এবং পাথর, লাঠি ও সমাবেশ স্থলে থাকা চেয়ার ছুড়ে মেরে হামলা চালায়। এতে বেশ কয়েকজন যুবলীগ কর্মী আহত হন। পরে মাইকে বারবার ঘোষণা দিয়ে ও পরিস্থিতি শান্ত করতে না পেরে অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি নিজেই সমাবেশ বন্ধ ঘোষণা করেন। এদিকে হাসপাতাল ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, হামলায় মীরসরাই উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক আহ্বায়ক মাইনুর ইসলাম রানা (যুবলীগের গঠিতব্য কমিটির সভাপতি প্রার্থী) সহ উভয় গ্রুপের প্রায় ৪০ জন যুবলীগ ও ছাত্রলীগের নেতা-কর্মী আহত হয়। আহতদেরকে তাৎক্ষণিক স্থানীয় মাতৃকা ও সেবা আধুনিক নামের বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। আহতদের মধ্যে যাদেও নাম পাওয়া গেছে তারা হলেন- উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক আহ্বায়ক মাইনুর ইসলাম রানা (গঠিতব্য যুবলীগের সভাপতি প্রার্থী), যুবলীগ কর্মী মোঃ শাকিল, মিয়া খান, নুরের চ্ছাপা, হৃদয়, ইমন, নোমান, আমজাদ ও কালাম। এ দের মধ্যে কালামের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে (চমেক) ভর্তি করানো হয়। ঘটনা সম্পর্কে মীরসরাই থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ মজিবুর রহমান স্থানীয় সাংবাদিকদের জানান, যুবলীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী ও সম্মেলনের উদ্দেশ্যে আয়োজিত সমাবেশে দু’পক্ষের পাল্টাপাল্টি শ্লোগান দেয়াকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষ হয় বলে জানতে পেরে তাৎক্ষণিক সহকারী পুলিশ সুপার (মীরসরাই) এর নের্তৃত্বে মীরসরাই থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হন। সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত কোনো পক্ষ-ই ঘটনার বিষয়ে থানায় কোনো অভিযোগ দেয়নি। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে বলে ও জানান তিনি। এ রিপোর্ট লেখা/পাঠানোর পূর্ব মুহুত্ব (রাত ৯টা) পর্যন্ত প্রাপ্ত খবরে জানা গেছে, মীরসরাই সদরে দু’গ্রুপ দু’দিকে অবস্থানে থাকায় চরম উতেত্তজনা বিরাজ করছে। এ ছাড়া- তাদের দু’গ্রুপের সমর্থিত অপরাপর নেতা-কর্মীরা মীরসরাই উপজেলার ১৬টি ইউনিয়ন ও ২টি পৌরসভায় পাল্টাপাল্টি অবস্থান নেয়ায় সমগ্র মীরসরাই উপজেলাতে-ই চরম উত্তেজনা বিরাজমান রয়েছে।

ঢাকা, ১১ নভেম্বর (ডেইলি টাইমস২৪)/আর এ কে

Show More

আরো সংবাদ...

Back to top button