বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি

চুক্তি বাতিল করায় ইলন মাস্কের বিরুদ্ধে টুইটারের মামলা

ডেইলি টাইমস ২৪:   সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটার কিনে নেওয়ার চুক্তি থেকে সরে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন বিশ্বের শীর্ষ ধনকুবের ও ইলেকট্রিক গাড়ি নির্মাতা ও প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান টেসলার প্রধান নির্বাহী ইলন মাস্ক। তবে এবার এই ইস্যুতে বিশ্বের সবচেয়ে ধনী ব্যক্তির সাথে আইনি লড়াই শুরু করেছে সোশ্যাল মিডিয়ার জায়ান্ট এই প্রতিষ্ঠানটি।

মূলত ইলন মাস্ককে সোশ্যাল মিডিয়ার এই প্লাটফর্মটি কিনতে বাধ্য করতেই তাকে আদালতে নিয়ে গেছে টুইটার। দায়ের করা হয়েছে মামলা। বুধবার (১৩ জুলাই) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গত এপ্রিলের শেষ দিকে ৪ হাজার ৪০০ কোটি মার্কিন ডলারে টুইটার কেনার ঘোষণা দেন ইলন মাস্ক। তবে শুক্রবার নিজের সেই প্রস্তাবিত রেকর্ড ৪৪ বিলিয়ন ডলারে টুইটার কেনার প্রস্তাব থেকে সরে যাওয়ার ঘোষণা দেন তিনি। এরপরই মাস্কের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে প্রতিষ্ঠানটি।

মাস্কের দাবি, স্প্যাম এবং ভুয়া অ্যাকাউন্টের পরিসংখ্যানের ব্যাপারে বিস্তারিত তথ্য দেয়নি টুইটার।

সংবাদমাধ্যম বলছে, মালিকানা অধিগ্রহণের চুক্তি থেকে সরে আসায় ধনকুবের ইলন মাস্কের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছে টুইটার। ৪ হাজার ৪০০ কোটি ডলারের চুক্তি ভঙ্গ করায় টেসলা কর্তার বিরুদ্ধে আদালতে মামলা দায়ের করা হলেও পাল্টা জবাব দিয়েছেন ইলন মাস্কও।

টুইটারে দেওয়া এক বার্তায় তিনি বলেছেন, ‘ওহ, দ্য আয়রনি, লল’। সরাসরি টুইটারের সঙ্গে চুক্তি বাতিলের কথা উল্লেখ না করলেও, মাইক্রো ব্লগিং সাইটের আইনি লড়াইয়ের সিদ্ধান্তকেই যে কটাক্ষ এই মন্তব্য তিনি করেছেন, তা বলার প্রয়োজন রাখে না।

গত ৮ জুলাই ইলন মাস্ক জানান, টুইটার অধিগ্রহণের আগে তিনি ওই সংস্থার কাছ থেকে বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্য জানতে চেয়েছিলেন, বিশেষ করে ভুয়া অ্যাকাউন্ট সম্পর্কে। কিন্তু টুইটার সেই তথ্য় জানাতে ব্যর্থ হওয়ায় তিনি এই চুক্তি থেকে বেরিয়ে আসছেন।

ইলন মাস্কের সংস্থার পক্ষ থেকে জানানো হয়, ভুয়া অ্যাকাউন্ট সম্পর্কে তথ্য না জানানোর কারণেই এই চুক্তি বাতিল করা হচ্ছে। তবে মাঝপথে চুক্তি বাতিল করায় ইলন মাস্ককে ১০০ কোটি ডলার জরিমানা দিতে হবে।

এদিকে, টেসলা কর্তার এই ঘোষণার পরই আইনি লড়াইয়ের পথে হাঁটার কথা জানিয়েছিল টুইটার। গত এপ্রিল মাসে হওয়া ৪ হাজার ৪০০ কোটি ডলারের চুক্তি থেকে হঠাৎ সরে আসতে পারেন না ইলন মাস্ক, এর জেরে টুইটারকে বিপুল আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়তে হচ্ছে বলেই দাবি সংস্থাটির। একইসঙ্গে টুইটার ব্যবহারকারী ও শেয়ারহোল্ডারদের কাছেও সংস্থার সম্মানহানি হয়েছে বলে অভিযোগ তোলা হয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের ডেলাওয়ারের আদালতে টুইটার দাবি করেছে, ইলন মাস্ক যেন শেয়ার প্রতি ৫৪.২০ ডলারের হিসাবেই টুইটারের মালিকানা হস্তান্তর প্রক্রিয়া শেষ করে। অন্যদিকে, টুইটার আইনি লড়াইয়ে নামার কিছু সময়ের মধ্যেই ইলন মাস্কের টুইট বিশেষ ইঙ্গিত বহন করছে বলেই মনে করছেন অনেকে।

উল্লেখ্য, গত এপ্রিল মাসে ইলন মাস্ক যখন রেকর্ড পরিমাণ অর্থের বিনিময়ে টুইটার কিনে নিতে চেয়েছিলেন, সেই সময় প্রথমে এই চুক্তি করতে অস্বীকার করেছিল টুইটার। পরে তারা রাজি হয়।

এখন তারাই সংস্থাটিকে কিনে নিতে বিশ্বের অন্যতম ধনী ব্যক্তির বিরুদ্ধে আইনি লড়াই শুরু করেছে। আর এই বিষয়টিকে হাস্যকর বলেই মনে করছে ইলন মাস্ক।

বিশ্বের সবচেয়ে ধনী ব্যক্তি ইলন মাস্ক বর্তমানে মার্কিন ইলেকট্রিক গাড়ি নির্মাতা ও প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান টেসলার প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা হিসেবে দায়িত্বপালন করছেন। এছাড়া দ্য বোরিং কোম্পানি এবং স্পেসএক্স নামে আরও দু’টি প্রতিষ্ঠানের প্রধান হিসেবেও দায়িত্ব সামলাচ্ছেন এই ধনকুবের।

Show More

আরো সংবাদ...

Back to top button